বিকাল ৫:৫৩,   বুধবার,   ১৬ই জানুয়ারি, ২০১৯ ইং,   ৩রা মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ,   ৮ই জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী
 

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে ৮ কি.মি যানজট

অনলাইন রিপোর্ট:
ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে প্রায় ৮ কিলোমিটার এলাকায় থেমে থেমে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের দেওহাটা থেকে ফতেপুর ইউনিয়নের শুভূল্যা পর্যন্ত যানজট রয়েছে। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টর ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে এমন চিত্র দেখা গেছে।

জানা গেছে, মহান বিজয় দিবসের ছুটিসহ তিনদিনের ছুটিতে বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে কর্মজীবী মানুষ বাড়ি ফিরতে শুরু করে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে মানিকগঞ্জ রোডের অনেক যানবাহন ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক দিয়ে চলাচল শুরু করে। সন্ধ্যার পর ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানবাহনের চাপ বেড়ে যায়। একদিকে মহাসড়কে চার লেন উন্নীতকরণ কাজ চলা এবং অপরদিকে অতিরিক্ত যানবাহন চলাচলের কারণে বৃহস্পতিবার রাত থেকে মহসড়কের বিভিন্ন স্থানে যানজটের সৃষ্টি হয়। রাতভর গোড়াই হাইওয়ে, মির্জাপুর থানা ও ট্রাফিক পুলিশ কাজ করে যানজট নিয়ন্ত্রণে আনে।

শুক্রবার ভোর থেকে মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই হাটুভাঙ্গা রোড, দেওহাটা, মির্জাপুর বাইপাস ও কুর্ণী নামক স্থানে থেমে থেমে যানজটের সৃষ্টি হয়। যানজট একপর্যায় ১ থেকে ২ ঘণ্টা স্থায়ী হয়। বিকেলেও একই অবস্থা দেখা গেছে। পুলিশ যানজট নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।

এদিকে গন্তব্যে যাওয়ার জন্য যাত্রীদের মির্জাপুর বাইপাস, পুরাতন বাসস্ট্যান্ড, কুরনী, ধল্যা, পাকুল্যা, জামুর্কী, দেওহাটা, সোহাগপাড়া ও গোড়াই বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বাসের জন্য অপেক্ষা করতে দেখা গেছে। বাস না পেয়ে অনেক যাত্রীকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পিকআপ ও মোটরসাইকেলযোগে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পিকআপের চালক আবুল হোসেন বলেন, সকাল ৯টার দিকে চন্দ্রা থেকে যাত্রী নিয়ে সিরাজগঞ্জের উদ্দ্যেশে যাত্রা করেন। দুপুর ১২টার দিকে মহাসড়কের চড়পাড়া এলাকায় এসে যানজটে আটকা পড়েন। এক ঘণ্টায় তিনি চার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে শুভূল্যা পর্যন্ত আসতে পেরেছেন।

একই কথা বলেন ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী মালভর্তি ট্রাকের হেলপার শওকত আলী ও গোপালপুর রোডের বাসের সুপারভাইজার আলআমিন মিয়া।

মহাসড়কের মির্জাপুর সদরের পুষ্টকামুরী চড়াপাড়া নামক স্থানে কর্তব্যরত টিআই মো. ইফতেখার বলেন, মহাসড়কে যানবাহনের অতিরিক্ত চাপ রয়েছে। মহাসড়ক চারলেনে উন্নীতকরণ কাজ চলায় বিভিন্ন স্থানে প্রচুর ধুলা উড়ছে। এ কারণে সামনে কিছু দেখা যায় না। ধুলার কারণে যানবাহনের চালকরা ধীর গতিতে যান চালান। তাছাড়া যানবাহনের চালকরা ট্রাফিক আইন না মেনে যান চালানোর কারণেও যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। যানজট নিরসনে পুলিশ কাজ করছে বলে তিনি জানান।

/এজে


আবহাওয়া

সিলেট
15°

অ্যাপস

সামাজিক নেটওয়ার্ক

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি