রাত ২:২৬,   বৃহস্পতিবার,   ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং,   ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,   ১৩ই রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী
 

নিখোঁজের ছয় মাস পর মাদ্রাসাছাত্র উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক:
পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলা থেকে নিখোঁজের ছয় মাস পর ১০ বছরের এক মাদ্রাসাছাত্রকে ঝালকাঠি থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, ওই ছাত্র নিজেই নানাবাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়েছিল।

গত মঙ্গলবার দুপুরে ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার বলাইবাড়ি এলাকায় সড়কের ওপর থেকে ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে পুলিশ। উদ্ধারের পর ওই ছাত্র বলে, সে নিজে বাড়ি থেকে পালিয়ে ঢাকা ও বরিশাল হয়ে সম্প্রতি ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় এসেছে। সে রাজাপুর উপজেলার কানুদাসকাঠি হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ২৬ আগস্ট পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার পূর্ব ভান্ডারিয়া গ্রামের নানাবাড়ি থেকে ওই ছাত্র নিখোঁজ হয়। পরিবার ও স্বজনেরা সম্ভাব্য স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পায়নি। পরে ২০ সেপ্টেম্বর তার বাবা হানিফ হাওলাদার বাদী হয়ে পিরোজপুর নারী ও শিশু নির্যাতন বিশেষ ট্রাইব্যুনালে চারজনকে আসামি করে মামলা করেন।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, নানাবাড়ি থেকে বাড়ি ফেরার পথে ভান্ডারিয়া উপজেলা জামিরতলা এলাকা থেকে স্থানীয় কিসলু হাওলাদার ও তাঁর ছেলে সায়েদ হাওলাদার, রশিদ হাওলাদার ও তাঁর ছেলে ওলী হোসেন ওই মাদ্রাসাছাত্রকে ফুসলিয়ে বিদেশে পাচারের উদ্দেশ্যে অপহরণ করে চট্টগ্রামের দিকে নিয়ে যায়।

আদালত মামলাটি ভান্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে এফআইআর করার নির্দেশ দেন। ১৪ অক্টোবর এজাহারটি এফআইআর করার পর মামলার তদন্তভার পান ভান্ডারিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শামসুল হক। মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ রাজাপুর উপজেলার বলাইবাড়ি এলাকায় সড়কের ওপর থেকে ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে। গতকাল বুধবার বিকেলে তাকে পিরোজপুরের অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। আদালতের বিচারক তার জবানবন্দি গ্রহণ শেষে শিশুটিকে তার বাবার জিম্মায় দেন।

মামলার আসামি কিসলু হাওলাদার বলেন, ‘মামলার পর গ্রেপ্তারের ভয়ে পালিয়ে বেড়িয়েছি। আশা করছি, পুলিশ ও আদালত আমাদের এই মামলা থেকে মুক্তি দেবেন।’

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ভান্ডারিয়া থানার এসআই শামসুল হক বলেন, ওই ছাত্রকে কেউ অপহরণ করেনি। সে পালিয়ে ঢাকা চলে যায়। এরপর ঢাকা থেকে লঞ্চে বরিশাল আসে। পরে সে বরিশাল থেকে রাজাপুরে আসে। এখন সে তার বাবার জিম্মায় আছে।


আবহাওয়া

সিলেট
15°

অ্যাপস

সামাজিক নেটওয়ার্ক

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি