রাত ১০:২৯,   বুধবার,   ২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং,   ৮ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,   ২৩শে সফর, ১৪৪১ হিজরী
 

পাইকারি বাজারে দাম নিম্নমুখী, খুচরা বাজারে প্রভাব কম

রিপোর্ট ডেস্ক:
ভারতের রফতানি বন্ধের ঘোষণায় বেশ কিছুদিন বাজারে লাফিয়ে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। তবে দুয়েকদিন ধরে পাইকারি বাজারে পণ্যটির দাম কমতে শুরু করলেও খুচরা বাজারে এর খুব একটা প্রভাব নেই। এখনও বেশিরভাগ খুচরা দোকানে পেঁয়াজ ৯০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। আবার কোনো কোনো জায়গায় একশ টাকা কেজিতেও বিক্রি হতে দেখা গেছে।

শনিবার (৫ অক্টোবর) কয়েকটি বাজার ঘুরে এবং ক্রেতা-বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ সব তথ্য জানা গেছে। কারওয়ান বাজারের বর্তমানে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ৫ টাকা কমে ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর শ্যামবাজারে একই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৬৫ টাকায়৷পাইকারি বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজও কেজিতে অন্তত ১০ টাকা কমে ৬৪ থেকে ৬৬ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। তবে খুচরা বাজারে সেই অর্থে পেঁয়াজের দামে তেমন প্রভাব পড়েনি।

কারওয়ান বাজারের পাইকারি বিক্রেতা আশসাফ বলেন, ‘দেশি পেঁয়াজের দাম গতকালের চেয়ে ৫ টাকা কমেছে। আজ প্রতিকেজি পেঁয়াজ ৮০ টাকায় বিক্রি করছি।’ সরবরাহ বাড়ায় পণ্যটির দাম কমেছে বলে জানান তিনি।আব্দুল খালেক নামের আরেক পাইকারি বিক্রেতা বলেন, ‘মোকাম থেকে কম দামে কিনতে পারায় পেঁয়াজের দাম কমতির দিকে। বাজার দেখে মনে হয়, দাম আরও কমতে পারে।’

বিক্রেতা আলাউদ্দিন বলেন, ‘সরকার বাইরে থেকে পেঁয়াজ আমদানি করার কারণে বাজার একটু নিয়ন্ত্রণে আছে। শ্যামবাজার ও কাওরান বাজারের পেঁয়াজের দামে পার্থক্য রয়েছে। কারওয়ান বাজারে দাম একটু বেশি।’

এর আগে বুধবার কারওয়ান বাজারের পাইকারি বাজারে দেশি পেঁয়াজ ১০০ টাকা কেজিতে হয়। শুক্রবার তা কমে ৮০ থেকে ৮৫ টাকা কেজিতে বিক্রি হতে দেখা গেছে। আর ভারতীয় পেঁয়াজ বুধবার সর্বোচ্চ ৮৪ টাকা কেজিতে বিক্রি হলেও শুক্রবার বেশিরভাগ দোকানে ৭৪ টাকা কেজিতে বিক্রি হতে দেখা যায়৷এছাড়া কারওয়ান বাজারে মিশরের পেঁয়াজও ৭০ টাকা কেজিতে বিক্রি হতে দেখা গেছে৷


আবহাওয়া

সিলেট
23°

অ্যাপস

সামাজিক নেটওয়ার্ক

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি