সকাল ৬:১৯,   মঙ্গলবার,   ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং,   ২রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,   ১৬ই মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী
 

বাগেরহাটে রোগীর বৃদ্ধ মাকে চিকিৎসকের মারধর

অনলাইন রিপোর্টঃ
বাগেরহাট সদর হাসপাতালে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে রোগীর সঙ্গে থাকা তার বৃদ্ধ মা নাসিমা বেগমকে (৫৫) মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

রোববার সকালে হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডের জুনিয়র কনসালটেড ডা. আবুল কালাম আজাদ ওই ওয়ার্ডের ৪ নং বেডে থাকা প্রসুতি রোজিনা বেগমের মাকে মারধর করেন। নির্যাতিত নাসিমা বেগম জেলার মোড়েলগঞ্জ উপজেলার গাজিরঘাট গ্রামের মো. ইদ্রিস শেখের স্ত্রী। ঘটনার পর ওই ওয়ার্ডে থাকা রোগী ও তাদের স্বজনদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

নাসিমা বেগম বলেন, সকালে মেয়ে রোজিনা বেগমের প্রসববেদনা শুরু হলে তাকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে এনে ভর্তি করি। কিছুক্ষণ পর চিকিৎসক রাউন্ডে আসলে রোগীর সঙ্গে থাকা স্বজনদের ওয়ার্ড থেকে বের হয়ে যেতে বলা হয়। এ সময় আমার মেয়ে তীব্র প্রসব বেদনায় কাতরাচ্ছিল। সেজন্য তাকে আমি বেডে ধরে রাখি। এ সময় ডা. আবুল কালাম এসে আমাকে দেখে আমার পিঠে জোড়ে আঘাত করেন। তখন আমি মেয়ের ব্যথার ব্যাপারে বললে তিনি আমাকে চড় মারেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বাগেরহাট সদর উপজেলার সুন্দরঘোনা গ্রামের কাকলি বেগম বলেন, মেয়েটি প্রসাববেদনায় কাতরাচ্ছিল। তার মা তাকে বেডে ধরে রেখেছিল। ডাক্তার এসেই তাকে মারপিট শুরু হরে। একজন ডাক্তারের এমন ব্যবহার আগে কখনও দেখিনি।

পাশের বেডে থাকা প্রসুতি অপরাজিতা রায় জানান, ডাক্তারের মারপিট ও ব্যবহারে আমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। এমন আচারণ একজন ডাক্তারের হতে পারে না। হাসপাতালে ডা. আবুল কালাম আজাদকে না পেয়ে এ বিষয়ে কথা বলার জন্য তাকে মোবাইলে কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে জেলার সিভিল সার্জন ডা. অরুণ চন্দ্র মন্ডল বলেন, রোগীর স্বজনদের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে বিষয়টি নিয়ে খোঁজর নিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। একজন চিকিৎসকরে এমন আচারণ কারো কাম্য নয়। বিষয়টি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উর্ধতন কতৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। উর্ধতন কতৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।


আবহাওয়া

সিলেট
26°

অ্যাপস

সামাজিক নেটওয়ার্ক

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি