রাত ১:০৩,   সোমবার,   ১৯শে আগস্ট, ২০১৯ ইং,   ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,   ১৬ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী
 

ব্রিজ খেলতে দিল্লি যাচ্ছেন ঢাবি ও জবির ৬ শিক্ষার্থী

রিপোর্ট ডেস্ক:
তাস খেলে বিশ্বজয়ের স্বপ্ন দেখছে একঝাঁক বাংলাদেশী তরুণ। তাস খেলতে ভারতের দিল্লি যাচ্ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ছয় শিক্ষার্থী। আগামী ৫ থেকে ১০ আগস্ট নয়াদিল্লির অ্যারাসিটির জেডব্লিউ ম্যারিয়ট হোটেলে অনুষ্ঠিতব্য ১৭তম এইচসিএল আন্তর্জাতিক ব্রিজ চ্যাম্পিয়নশিপে অংশগ্রহণ করবেন তারা।

এই উদ্দেশে রোববার (৪ আগস্ট) ‘ব্রেইন টেস্ট’ নামের দলটি বাংলাদেশের প্রথম মিক্সড টিম (ছেলে-মেয়ের টিম) হিসেবে খেলতে যাচ্ছে ভারতে।

বিশ্বের অনেক দেশের মতো বাংলাদেশেও বেশ জনপ্রিয় ‘ডুপ্লিকেট ব্রিজ’ নামের তাস খেলা। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা বেশি খেলে থাকে এটা। অনেকে অংশগ্রহণ করেন দেশ-বিদেশের বড় বড় সব টুর্নামেন্টেও। খেলাটা যেমন উপভোগ্য তেমনি মেধার ব্যবহারও আছে।

ব্রেইন টেস্টের অধিনায়ক হিসেবে আছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্যবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান, সহঅধিনায়ক হিসেবে থাকবেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের শিক্ষার্থী তরিকুল ইসলাম তারেক। এছাড়া টিমের সদস্যদের মধ্যে আছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী আল-হেলাল, ফার্মাসি অনুষদের সুমাইয়া আক্তার, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের মাসুম বিল্লাহ তাহসান ও নাজমুল হক।

এবার ১৭তম এইচসিএল আন্তর্জাতিক ব্রিজ চ্যাম্পিয়নশিপে তিনটি ইভেন্টে অংশগ্রহণ করছে বিশ্বের অনেক দেশ। ইভেন্টগুলো হচ্ছে গোল্ডেন, সিলভার ও ব্রোঞ্চ। বাংলাদেশ থেকে ব্রেইন টেস্ট টিমটি সিলভার ইভেন্টের অধীনে অংশগ্রহণ করছে। প্রত্যেক ইভেন্ট সেরা ২০ টিমকে বাছাই করে পুরস্কার দেওয়া হবে।

টিমের প্রত্যাশা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করে অধিনায়ক মেহেদী হাসান বলেন, ‘আমরা প্রায় দুই বছর যাবৎ একসঙ্গে খেলছি, চেষ্টা করে যাচ্ছি নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়েও। অন্য সকলের মতো পরিবারের অনেকেই তাস খেলাটাকে ভালভাবে নিতে পারেনি। কিন্তু আমরা হতাশ না হয়ে চেষ্টা করে যাচ্ছি। দেশের প্রতিনিধিত্ব সব সময় একটা স্বপ্নের মতো ব্যাপার।’

এ বিষয়ে সহ-অধিনায়ক তরিকুল ইসলাম তারেক বলেন, ‘ছাত্র অবস্থায় অনেক সময়ই আসলে নষ্ট করে ফেলেছি এটা সেটা করে। কিন্তু একটা সময় পর যখন ব্রিজ খেলাটা শিখলাম তখন বুঝলাম স্বপ্ন কি জিনিস, লক্ষ্য কি জিনিস। ক্যারিয়ারের পাশাপাশি ব্রিজ খেলার মতো বিনোদন, প্রতিযোগিতা আমাদের জীবনকে আরও অর্থবহ করে তুলেছে নিঃসন্দেহে। আমরা ভালো কিছু করার ব্যাপারে আশাবাদী।’

উল্লেখ্য, এইচসিএল প্রতি বছর ভারতের নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। এইচসিএল আন্তর্জাতিক সেতু চ্যাম্পিয়নশিপের মাধ্যমে ২০০৩ সাল থেকে ভারতে এই খেলাকে জোরালো সমর্থন করে আসছে।


আবহাওয়া

সিলেট
26°

অ্যাপস

সামাজিক নেটওয়ার্ক

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি