রাত ৮:৩৩,   শুক্রবার,   ১৮ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং,   ৩রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,   ১৮ই সফর, ১৪৪১ হিজরী
 

মাগুরায় ওসির বিরুদ্ধে মামলা

অনলাইন ডেস্কঃ
শালিখা থানার ওসি রবিউল হোসেনের বিরুদ্ধে ঘুষ আদায় ও মাদক ব্যবসায়ীদের পৃষ্টপোষকতার অভিযোগে মাগুরার আদালাতে মামলা দায়ের হয়েছে। বুধবার দুপুরে দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে মামলাটি দায়ের করেন শালিখা উপজেলার শাবলাট গ্রামের মহব্বত হোসেন। আদালত মামলাটি দুর্নীতি দমন কমিশনকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন।

বাদীর আইনজীবী শেখ গোলাম নবী শাহিন জানান, গত ৩১ মার্চ উপজেলার শাবলাট গ্রামের কামরুল মোল্যার বাড়িতে টেকনাফের জামাল হোসেনসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী বিপুল পরিমান ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে অবস্থান করছিলেন বলে মহব্বত হোসেন জানতে পারেন। তিনি বিষয়টি শালিখা থানাকে অবহিত করলে পুলিশ ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ তিনজনকে আটক করেন। পরে ওসি মোটা অংকের ঘুষ নিয়ে ২০ হাজার পিসের পরিবর্তে ২২০ পিস ইয়াবা উদ্ধার দেখিয়ে তাদের আদালতে চালান করেন ও বাকি ইয়াবা তার হেফাজতে রাখেন। এরপর ওই মামলায় ইয়াবার সন্ধানদাতা তার মক্কেল মহব্বত হোসেনকেও আসামি করা হয়। পরে মহব্বত হোসেনকে ওসি বলেন, ৫০ হাজার টাকা দিলে চূড়ান্ত চার্জশিট থেকে তার নাম বাদ দেওয়া হবে। মিথ্যা মামলা থেকে বাঁচতে মহববত হোসেন ১৪ মে ওসি রবিউল হোসেনকে ৫০ হাজার টাকা দেন। কিন্তু টাকা নেওয়ার পরও ওসি চার্জশিট থেকে তার নাম বাদ দেনি।

তিনি আরও জানান, উপরে উল্লেখিত ঘটনায় তার বাদী ২৫ জুলাই দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে আদালতে মামলা করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। ওসি রবিউল হোসেন স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে উৎকোচ নিয়ে মাদক ব্যবসা পরিচালনায় সহযোগিতা করে আসছেন বলেও মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ওসি রবিউল হোসেন বলেন, ইয়াবা উদ্ধারে অভিযান চালানোর সময় আমি ছিলাম না। মহব্বত একজন মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে থানায় ৮টি মাদকের মামলা আছে। এসব মামলা হাত থেকে বাঁচতে সে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা করেছে।


আবহাওয়া

সিলেট
26°

অ্যাপস

সামাজিক নেটওয়ার্ক

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি