বিকাল ৩:০৪,   শনিবার,   ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং,   ৬ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,   ২০শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী
 

হাসপাতালের বিল দেখে নবজাতককে ফেলে পালালেন মা-বাবা

নিউজ ডেস্কঃ
নির্ধারিত সময়ের আগেই ৭০০ গ্রাম ওজনের ছেলে নবজাতক নিয়ে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার বাকিলা গ্রামের শাহ আলম ও তার স্ত্রী রোকেয়া বেগম কুমিল্লা নগরীর ঝাউতলার ‘কুমিল্লা মা ও শিশু স্পেশালাইজড’ হাসপাতালে আসেন। এ ঘটনা গত ১৮ আগস্টের।

হাসপাতালে আনার পর ওই শিশুর অবস্থা আশঙ্কা জনক দেখে ডাক্তাররা তাৎক্ষণিকভাবে শিশুটির জীবন বাঁচাতে নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে (এনআইসিইউ) রাখার ব্যবস্থা করেন। এর আগেও ওই দম্পতির ৩টি বাচ্চা জন্মের পর মারা যায় বলে ডাক্তাররা জানান। সবকিছু ঠিকই ছিল। সন্তানও কিছুটা সুস্থ্য হওয়ার পথে ছিল। কিন্তু হাসপাতালের বিলের ফিরিস্তি দেখে সন্তান ফেলে পালিয়ে গেছেন দারিদ্র্যপীড়িত বাবা-মা।

বর্তমানে বিষয়টি গড়িয়েছে পুলিশ, স্বাস্থ্য বিভাগ ও জেলা প্রশাসন পর্যন্ত। এদিকে শিশুটিকে নিয়ে বিপাকে পড়েছেন হাসপাতাল কতৃপক্ষ। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত ১৮ আগস্ট অসুস্থ্ অবস্থায় নবজাতককে হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে তার চিকিৎসা করা হয়। চিকিৎসায় বেশ আরোগ্যও হয় শিশুটি। কিন্তু বিপত্তি দেখা দেয় বিল নিয়ে। ৬ষ্ঠ দিনে নবজাতকের চিকিৎসার বিলের পরিমাণ দুই লাখ বলে ওই দম্পতিকে জানানো হয়।

পরে মোটা অঙ্কের এই বিল দেখে সবার অজান্তে প্রিয় সন্তানকে হাসপাতালের এসআইসিইউতে রেখেই গত ২৪ আগস্ট হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান দম্পতি। দিনভর বাবা-মায়ের সন্ধান না পেয়ে ওই শিশুর বিষয়ে কোতয়ালি মডেল থানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সাধারণ ডায়রি করেন।

এদিকে হাসপাতাল কতৃপক্ষ রোববার পর্যন্ত এ নিয়ে কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি। তবে মানবিক কারণে ভালোভাবেই নবজাতকের চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

কোতয়ালি মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ আবু সালাম মিয়া জানান, হাসপাতালের রেজিস্ট্রারে যে ঠিকানা আছে সেটা অনুসন্ধান করা হচ্ছে। ওই ঠিকানায় তাদের না পেলে সরকারি চাইল্ড হোম কিংবা আদালতের অনুমতি নিয়ে শিশুটিকে কাউকে দত্তক দেওয়া হতে পারে।


আবহাওয়া

সিলেট
36°

অ্যাপস

সামাজিক নেটওয়ার্ক

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি