রাত ৮:২৩,   মঙ্গলবার,   ২৩শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং,   ১০ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,   ১৭ই শাবান, ১৪৪০ হিজরী
 

২০৩০ সালের মধ্যেই নির্মূল হবে ফিস্টুলা

অনলাইন ডেস্ক:
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ১শ’তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে ইউনিভার্সিটি ফিস্টুলা সেন্টার, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় এবং বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতি (বানাসাস)’র যৌথ উদ্যোগে আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা এনজেন্ডার হেলথ বাংলাদেশ এর ফিস্টুলা কেয়ার প্লাস প্রকল্পের সহযোগীতায় এক বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এ উপলক্ষে কর্মসূচির মধ্যে ছিল ফিস্টুলা বিষয়ক বিশেষ আলোচনা, ফিস্টুলা রোগীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময়, তাদের বিশেষ স্বাস্থ্যসেবা প্রদান ও উন্নতমানের খাবার পরিবেশন।

অধ্যাপক ডাঃ তৃপ্তি রানী দাশ, চেয়ারম্যান, স্ত্রীরোগ ও প্রসূতিবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় এর সভাপতিত্বে আলোচনা অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন অবস্টেট্রিক্যাল এন্ড গাইনীকোলোজিক্যাল সোসাইটি অব বাংলাদেশ (ওজিএসবি) এর সেক্রেটারী জেনারেল অধ্যাপক ডাঃ সালেহা বেগম চৌধুরী, ডাঃ শারমিন মাহমুদ, ডাঃ শিউলি চৌধুরী, স্ত্রীরোগ ও প্রসূতিবিদ্যা বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, অধ্যাপক ডাঃ বেগম নাসরিন, এনজেন্ডার হেলথ বাংলাদেশ এর দেশীয় কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ডা. শেখ নাজমুল হুদা, ডাঃ লাকী ঘোষ, ডাঃ ইসরাত জাহান, ডাঃ ফারহানা আলম, বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতি (বানাসাস)’র সভাপতি নাসিমা সোমা, সাধারণ সম্পাদক আনজুমান আরা শিল্পী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা আকতার, অর্থ সম্পাদক ইশরাত ফারহিম, নির্বাহী সদস্য ফাতিমা মুন্নি, সালমা আফরোজ প্রমুখ।

এসসময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্ত্রীরোগ ও প্রসূতিবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডাঃ তৃপ্তি রানী দাশ ইউনিভার্সিটি ফিস্টুলা সেন্টারকে জাতীয় ফিস্টুলা সেন্টারে রূপান্তর করার দাবি জানান। সেইসাথে তিনি যেসব জটিল ফিস্টুলা রোগীদের চিকিৎসার মাধ্যমে নিরাময় সম্ভব নয় তাদের জন্য পুনর্বাসন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির বিষয়ে জোর দেন।

অনুষ্ঠানে সমাজের অবহেলিত মানুষের জন্য বঙ্গবন্ধুর মমতার কথা সভায় অত্যন্ত শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করা হয়। সেই চেতনায় অনুপ্রাণিত হয়ে সবাইকে মহিলা জনিত ফিস্টুলা রোগীদের সেবা ও পুনর্বাসনে এগিয়ে আসার আহবান জানানো হয়।

ইউনিভার্সিটি ফিস্টুলা সেন্টার, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় অবহেলিত নারীদের ফিস্টুলা সেবায় কাজ করছে। সেন্টারটি স্থাপনে আর্থিক ও কারিগরি সহযোগিতা দিচ্ছে ইউএসএআইডি এর সাহায্যপুষ্ট এনজেন্ডার হেলথ বাংলাদেশ এর ফিস্টুলা কেয়ার প্লাস প্রজেক্ট।

আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা জাতিসংঘ ২০৩০ সালের মধ্যে ফিস্টুলা নির্মূলের যে অঙ্গীকার করা হয়েছে তা বাস্তবায়নে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এছাড়াও ফিস্টুলা রোগীদের জন্য সকল সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা চালু করার বিশেষ অনুরোধ জানানো হয়।

অন্যান্য আলোচনার সাথে বক্তারা আরও বলেন, যে সকল ফিস্টুলা রোগীদের অপারেশনের পরও আর ভালো হওয়ার সম্ভাবনা নেই সে সকল রোগীদের জন্য ধারাবাহিক বিশেষ স্বাস্থ্যসেবার ব্যবস্থা করা। অনুষ্ঠান শেষে রোগীদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।


আবহাওয়া

সিলেট
29°

অ্যাপস

সামাজিক নেটওয়ার্ক

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি