সকাল ১১:৪৬,   মঙ্গলবার,   ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং,   ৭ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,   ২১শে সফর, ১৪৪১ হিজরী
 

নওগাঁয় একসঙ্গে ৬ মৃত সন্তানের জন্ম দিলেন নারী

অনলাইন ডেস্কঃ
নওগাঁ সদর হাসপাতালে মৌসুমী আকতার নামে এক গৃহবধূ ৬টি মৃত সন্তান প্রসব করেছেন। গর্ভবতী হওয়ার ৪ মাসের মধ্যেই এই প্রসবের ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার রাতে নিজ বাড়িতে একটি ও শনিবার সকাল ১০ টার দিকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে পরপর ৫টি মৃত সন্তান প্রসব করেন মৌসুমী আকতার। এ ঘটনায় নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভিড় করেছেন শত শত উৎসুক নারী-পুরুষ।

মৌসুমী আকতারের স্বামী শেখ রানা জানান, ২০১০ সালে নওগাঁর মান্দা উপজেলার ভরোট্র কাঠেরডাঙ্গা গ্রামের ফজের আলীর মেয়ে মৌসুমীর সাথে তার বিয়ে হয়। দীর্ঘ ৮ বছর ধরে তাদের কোন সন্তান হয়নি। গত এপ্রিল মাসে তার স্ত্রীর পেটে সন্তান আসে। স্থানীয় চিকিৎসকের পরামর্শে নওগাঁর একটি ডায়াগনিস্টিক সেন্টারে আলট্রাসোনোগ্রাম করার পর জানতে পারেন তার স্ত্রীর পেটে ৬টি সন্তান রয়েছে। এরপর থেকে গাইনি ডাক্তারের অধীনে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

তিনি জানান, হঠাৎ করে শুক্রবার বিকেলে তার স্ত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে নওগাঁ শহরের খাস নওগাঁর বাসায় একটি মৃত সন্তান প্রসব করেন। এ সময় মৌসুমী আকতারের অবস্থার অবনতি হলে তাকে শুক্রবার রাত ৯টার দিকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরে শনিবার সকাল ১০ টার দিকে আরও ৫টি মৃত সন্তান প্রসব করেন। তাকে নওগাঁ সদর হাসপাতালের গাইনি বিভাগে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে।

নওগাঁ সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. রওশন আরা খানম জানান, গর্ভবতী হওয়ার পর স্বাভাবিক ভাবে বাচ্চা প্রসব হতে ৩৭ থেকে ৪০ সপ্তাহ সময় লাগে। কিন্তু এই প্রসুতির ক্ষেত্রে স্পন্টানিয়াস এ্যাবরশান (আপনা-আপনি গর্ভপাত) হয়েছে। যার কারণে মাত্র ১৬ সপ্তাহে ৬টি মৃত বাচ্চা প্রসব করেছেন। মৃত বাচ্চাগুলো ছেলে ছিল।

তিনি আরও জানান, বর্তমানে মৌসুমী আকতার সুস্থ্য আছেন। একের অধিক বাচ্চা গর্ভে থাকলে প্রসুতিকে স্পেশাল কেয়ার নিতে হয়। আর মৌসুমীর ক্ষেত্রে ৬টি বাচ্চা গর্ভে থাকায় অনেকটাই ঝুঁকিপূর্ণ ছিলেন তিনি।


আবহাওয়া

সিলেট
29°

অ্যাপস

সামাজিক নেটওয়ার্ক

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি